প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শীতজনিত রোগী বাড়ছে উত্তরাঞ্চলের হাসপাতালগুলোতে

মঈন উদ্দীন, রাজশাহী প্রতিনিধি : উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি জেলায় ক’দিন ধরে সূর্য দেখা না দেয়ায় তাপমাত্রা ক্রমেই কমছে। এতে শীতের তীব্রতায় কাহিল হয়ে পড়েছে দেশের উত্তরাঞ্চলের মানুষ। তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রির নিচে নেমে আসায় নাস্তানাবুদ হয়ে পড়েছেন এসব জেলার লোকজন। এতে ঠান্ডাজনিত রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। হাড় কাঁপানো শীতের কারণে কাজে নামতে পারছেন না দরিদ্র মানুষ। চরম দুর্ভোগে পড়েছেন দেশের উত্তরাঞ্চলের মানুষ।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, পৌষের শুরুতে শীতের তীব্রতা বেড়েছে। সেই সঙ্গে আছে ঘন কুয়াশা। তাপমাত্রা কমেছে তিন থেকে সাত ডিগ্রি পর্যন্ত। এমন অবস্থা চলবে আরো দুই দিন। আসতে পারে নিম্নচাপ। এ ছাড়া ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ দেখা দিতে পারে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ।

উত্তরাঞ্চলের দিনাজপুরে বুধবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। দিনাজপুর আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক তোফাজ্জল হোসেন জানান, বুধবার ভোরে দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কিন্তু সকালে সূর্যের দেখা মেলায় তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করেছে। এটাই চলতি মৌসুমে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। দু’এক দিনের মধ্যে তাপমাত্রা আরও কমতে পারে বলে তিনি জানান।

এদিকে, তাপমাত্রা কমার পাশাপাশি বেড়েছে শীতের তিব্রতা। ফলে গরম কাপড়ের দোকানগুলোতে বেড়েছে মানুষের ভীড়। আবার শীতজনিত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে হাসপাতালে। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, রাজশাহী প্রতিদিন গড়ে ১০০ রোগী ভর্তি হচ্ছে শীতজনিত রোগে। যাদের মধ্যে শিশু ও বয়স্ক বেশি। সম্পাদনা : জেরিন মাশফিক

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত